আমাদের সম্পর্কে

বিদ্যালয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

ঢাকা শহরের একটি অন্যতম উন্নত এবং আধুনিক সুবিধা সমৃদ্ধ এলাকা উত্তরার ঠিক পাশেই তুলনামূলকভাবে অনুন্নত এবং অবহেলিত উত্তরখান এলাকায় মান সম্মত এবং যুগোপযোগী শিক্ষা প্রদানের উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে ২০০৮ সালে মাত্র ৩৫ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল কচিকণ্ঠ বিদ্যানিকেতন অ্যান্ড কলেজ। সকলের দোয়া এবং ঐকান্তিক সহযোগিতায় আজ অত্র বিদ্যালয়ে প্লে-গ্রুপ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ৩৫০ জন ছাত্রছাত্রী অধ্য....বিস্তারিত

শিক্ষা কার্যক্রম

বিদ্যালয়টি এনসিটিবি এর জাতীয় শিক্ষাক্রম অনুসরণ করে। পাশাপাশি ইংরেজিতে ভাল জ্ঞান অর্জন করার জন্য ব্রিটিশ পাঠ্যক্রমেও পড়ানো হয়ে থাকে। শিখন পদ্ধতি অনুসারে শ্রেনিকক্ষে পাঠদান খুবই গুরুত্ব সহকারে করা হয়। বিভিন্ন প্রতিযোগিতা যেমন ড্রইং, রং করা, গল্প বলা, সুন্দর সাজ ও সাজানো ও বিভিন্ন উৎসব উদযাপন ছাত্র ছাত্রীদের প্রধান আকর্ষণ হয়ে থাকে। নিয়মিত পাঠ্যক্রমের বাইরে শিশুরা অন্যান্য সহপাঠ্যক্রমিক কার্যক্রমেও নি.....বিস্তারিত

সাফল্য

২০১৪ সালে পিইসি পরীক্ষায় পাশের হার শতভাগ- তন্মধ্যে ৮৪% A+ এবং বাকি ১৬% A এবং ২০১৫ সালেও পিইসি পরীক্ষায় পাশের হার শতভাগ- তন্মধ্যে ৭৭% A+ এবং বাকি ২৩% A । ২০১৬ ও ২০১৭ সালে PEC পরীক্ষায় দুই দুইবার শতভাগ (১০০%) A+ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। শতভাগ A+ অর্জনকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে আমাদের অবস্থান উত্তরখান তথা উত্তরার মধ্যে শীর্ষে। আমরা আশা করি ভবিষ্যতে সকলের সহযোগিতায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি আরও গৌরবময় সাফল......বিস্তারিত

লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

গুণগত মানের কথা চিন্তা না করে শুধু সংখ্যা বাড়ানোর কোন উদ্দেশ্য আমাদের কোন দিনও ছিলনা এবং ভবিষ্যতেও থাকবেনা। অত্র এলাকায় আধুনিক শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়ার যে ব্রত নিয়ে আমরা এই সেবামূলক কাজটি শুরু করেছিলাম, অত্যন্ত গর্বের সাথে বলতে পারি আমরা অদ্যাবধি আমাদের সেই নীতিতে অটল আছি এবং থাকব ইনশাআল্লাহ। এলাকার আরও কিছু বিদ্যালয় নামধারী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মত শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করার কোন উদ্দেশ্য আমাদের নেই। ক......বিস্তারিত

শিক্ষকবৃন্দ ও ছাত্রছাত্রী

একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রাণ হচ্ছে ঐ প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী এবং প্রতিষ্ঠানটির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির পেছনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে শিক্ষকমন্ডলী। অত্র বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা মাত্র ৩৫০ জন হলেও তারা দেশের সেরা যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে শিক্ষা অথবা সহশিক্ষা বিষয়ক যে কোন প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট অর্জন করবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। অত্র প্রতিষ্ঠানে রয়েছে একঝাঁক নিবেদিত প্রাণ শিক্ষক। বিষ.....বিস্তারিত

পি.ই.সি-২০১৬ ও ২০১৭ সালের পরীক্ষায় ১০০% A+

২০১৬ ও ২০১৭ সালে PEC পরীক্ষায় দুই দুইবার শতভাগ (১০০%) A+ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। শতভাগ A+ অর্জনকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে আমাদের অবস্থান উত্তরখান তথা উত্তরার মধ্যে শীর্ষে। ** সেজন্য সম্মানিত প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন।.....পি.ই.সি. রেজাল্ট

সুযোগ-সুবিধা

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আরামদায়ক পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন জেনারেটর স্হাপন করা হয়েছে । সকল শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের ব্যবস্থা । বিদ্যালয়ের দূর দুরান্তের শিক্ষার্থীদের জন্য নিজস্ব ট্রান্সপোর্ট ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে । ক্যাম্পাসে রয়েছে প্রাথমিক চিকিৎসার সুব্যবস্থা । শিক্ষার্থীদের জন্য আছে পৃথক গ্রন্থাগার , পৃথক কম্পিউটার ল্যাব ও অন্যান্য ল্যাব, ইনডোর .....বিস্তারিত

আসন সংখ্যা

প্লে-গ্রুপ-৬০, র্নাসারি-৬০, প্রথম শ্রেণি-৫০, দ্বিতীয় শ্রেণি-৫০, তৃতীয় শ্রেণি-৫০, চর্তুথ শ্রেণি-৫০, পঞ্চম শ্রেণি-৫০, ষষ্ঠ শ্রেণি-৫০, সপ্তম শ্রেণি-৫০, অষ্টম শ্রেণি-৫০, নবম শ্রেণি-৫০, দশম শ্রেণি-৫০।.....আসন সংখ্যা

নিজের উপর বিশ্বাস রাখো এবং কখনো হাল ছেরোনা

13

শ্রেণি

660

শিক্ষার্থী

35

শিক্ষক/শিক্ষিকা

যে কারণে আপনার সন্তানকে কচিকণ্ঠ বিদ্যানিকেতন অ্যান্ড কলেজে ভর্তি করবেন

সভাপতির বক্তব্য:

  • “Education is the backbone of a nation” শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। মেরুদণ্ড ছাড়া যেমন কোন প্রাণি সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারে না, তেমনি শিক্ষা ছাড়া কোন জাতির পক্ষেই বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে স্বীয় অস্তিত্ব নিয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসন অর্জন করা সম্ভব না। যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত, বিশ্বদরবারে সে জাতি তত বেশি মর্যাদাপূর্ণ আসনে অধিষ্ঠিত। কাজেই শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। একটি সুশিক্ষিত জাতিই উপহার দিতে পারে একটি সুন্দর দেশ, সুন্দর ভবিষ্যৎ। আর এই ভবিষ্যৎ এর ভিত্তি হচ্ছে আমাদের শিশুরা। যখন প্রতিটি শিশু সুশিক্ষায় শিক্ষিত হবে তখন সেই দেশ ও জাতি শান্তি সমৃদ্ধির সর্বোচ্চ শিখরে আরোহণ করবে। কাজেই প্রত্যেকেরই মনোযোগী হতে হবে কোমলমতি এই শিশুদের প্রতি। একজন শিল্পী তার শিল্প......বিস্তারিত

    এম এন এইচ রিজন আহমেদ

    প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি
    কচিকন্ঠ বিদ্যানিকেতন এন্ড কলেজ।

ভর্তি তথ্য

ভর্তির জন্য চাহিদা অনুযায়ী সকল কাগজপত্রসহ প্রধান শিক্ষক বরাবর আবেদন করতে হয়। ১০০ টাকা দিয়ে অফিস সময়ে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করা যায়।

ভর্তি নিয়ামাবলি

    • প্লে-গ্রুপ ও নার্সারি
      • প্লে-গ্রুপের জন্য শিশুর বয়স নুন্যতম ৩.৫ বৎসর এবং নার্সারির জন্য ৪.৫ বৎসর হতে হবে।

      • শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে হবে।

 

  • কেজি থেকে দশম শ্রেনি পর্যন্ত
    • বিগত বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

ভর্তি পদ্ধতি

ভর্তির জন্য চাহিদা অনুযায়ী সকল কাগজপত্রসহ প্রধান শিক্ষক বরাবর আবেদন করতে হয়। ১০০ টাকা দিয়ে অফিস সময়ে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করা যায়।

ভর্তির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি

১। শিক্ষার্থীর জন্ম নিবন্ধন সনদপত্র। ২। পিতা মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র ( প্লে- ৫ম শ্রেণি) ৩। বিগত বার্ষিক পরীক্ষার নম্বরপত্র ৪। ছাড়পত্র (৬ষ্ঠ- ৯ম) ৫। ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি। ৬। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার সনদ অথবা নম্বর পত্র (৬ষ্ঠ শ্রেণি)। ৭। জুনিয়র স্কুল সনদপত্র অথবা নম্বরপত্র (৯ম শ্রেণিতে ভর্তির জন্য)।